1. admin@ammarpluspnewschannel.com : admin :
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আ.লীগ সরকার মানুষের রক্ত চুষে খাচ্ছে : রেজা কিবরিয়া জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টির নেতাকে হুমকি, থানায় জিডি রকি নামে এক পোল্ট্রি মুরগির ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ বললেন- সালমা ইসলাম এমপি নারায়ণগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, নিহত ১ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে শত্রুতা করে কৃষকের ২০০ লাউ গাছ কেটে ফেলেছে দৃর্বৃত্তরা সরকার গঠন করতে ১৫১ আসনে জয় পেতে হয়, ১৫০ আসনে ইভিএমে ভোট নেওয়ার সিদ্ধান্ত উদ্দেশ্য প্রণোদিত নাটোরে স্ত্রীর মৃত্যুর ১২ ঘণ্টা পর চলে গেলেন স্বামীও এক ব্যাক্তির হাতে সকল ক্ষমতা থাকলে গণতন্ত্র চর্চা সম্ভব নয় – জি,এম কাদের গোপালগঞ্জে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ৫১ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্কঃ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক ও সাবেক চেয়ারম্যান আনছার উল্যাহকে (৬৫) মারধর করার প্রতিবাদে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল হয়েছে। মিছিল-পরবর্তী বিক্ষোভ সমাবেশ পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো: সাজ্জাদ রোমনসহ সাত পুলিশ সদস্য আহত হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১৫০ জনকে আসামি করে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের করেছে।

কাদের মির্জা সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই এবং বসুরহাট পৌরসভার মেয়র। তবে ঝাড়ু মিছিল-পরবর্তী বিক্ষোভ সমাবেশ পুলিশী বাধায় পণ্ড হয়ে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বিবদমান দু’গ্রুপের দ্বন্দ্ব।

বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের বামনী বাজারে এ ঝাড়ু মিছিল করে চেয়ারম্যান প্রার্থী কাদের মির্জার ভাগ্নে সিরাজিস সালেকিন রিমনের সমর্থকরা। তারা এ ঘটনার জন্য কাদের মির্জার বিচার দাবি করে স্লোগান দেয়। এর আগে ওই দিন দুপুর ২টার দিকে উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের চরকাঁকড়া গ্রামের মরহুম দর্জি ওবায়দুল হকের বাড়িতে কুলখানি অনুষ্ঠানে এক বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধর করার অভিযোগ উঠে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে। কুলখানি অনুষ্ঠানে বিএনপির নেতা আনছার উল্যাহকে মারধর করার খবর ছড়িয়ে পড়লে রামপুর ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষ ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: সাজ্জাদ রোমন জানান, বুধবার রাতে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান নেয়। এ সময় দুই পক্ষের সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ দুই পক্ষকে বামনী বাজার থেকে সরিয়ে দেয়। এ সময় দুই পক্ষের লোকজন আমিসহ সাতজন পুলিশ সদস্যকে আহত করে।

তিনি আরো বলেন, তবে বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১৫০ জনকে আসামি করে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ‘ভুক্তভোগীর অভিযোগ, বুধবার দুপুরের দিকে তিনি বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আমেরিকা প্রবাসী মরহুম দর্জি ওবায়দুল হকের কুলখানি অনুষ্ঠানে যান। এ সময় ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা। তিনি তাকে ওই অনুষ্ঠানে আসতে দেখে বসা থেকে উঠে অন্য একটি জায়গায় গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় কাদের মির্জা কতক্ষণ ওই স্থানে বসে থাকেন। এক পর্যায়ে বসা থেকে উঠে এসে কাদের মির্জা আমাকে ভোট চুরির অভিযোগ তুলে মুখে থাপ্পড় মেরে দেয়। থাপ্পড়ের সাথে সাথে আমার চোখের চশমা চোখ থেকে খুলে মাঠিতে পড়ে যায়। আমার মুখ ছিলে যায়। এরপর আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন। এরপর আরো উত্তোজিত হয়ে উড়ে এসে আবার আমাকে আরেক থাপ্পড় দিয়ে গায়ে থেকে আমার চাদর ফেলে দেন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কাদের মির্জার ভাগ্নে রামপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সিরাজিস সালেকিন রিমন বলেন, ‘আমার ভোট করায় উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আনছার উল্যাহকে মারধর করেন কাদের মির্জা। এ ঘটনা শুনতে পেয়ে তাৎক্ষণিক আমি তাকে দেখতে যাই। ভুক্তভোগী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এ ঘটনায় আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমার সমর্থককে মারধর করায় আজ সন্ধ্যায় রামপুর ইউনিয়নের বামনী বাজারে ঝাড়ু মিছিল হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Ammar Plus P News Channel
Theme Customized By Theme Park BD