1. admin@ammarpluspnewschannel.com : admin :
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আ.লীগ সরকার মানুষের রক্ত চুষে খাচ্ছে : রেজা কিবরিয়া জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টির নেতাকে হুমকি, থানায় জিডি রকি নামে এক পোল্ট্রি মুরগির ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ বললেন- সালমা ইসলাম এমপি নারায়ণগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, নিহত ১ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে শত্রুতা করে কৃষকের ২০০ লাউ গাছ কেটে ফেলেছে দৃর্বৃত্তরা সরকার গঠন করতে ১৫১ আসনে জয় পেতে হয়, ১৫০ আসনে ইভিএমে ভোট নেওয়ার সিদ্ধান্ত উদ্দেশ্য প্রণোদিত নাটোরে স্ত্রীর মৃত্যুর ১২ ঘণ্টা পর চলে গেলেন স্বামীও এক ব্যাক্তির হাতে সকল ক্ষমতা থাকলে গণতন্ত্র চর্চা সম্ভব নয় – জি,এম কাদের গোপালগঞ্জে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের বিচার চাওয়ায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে ভিকটিম

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ৫০ বার পঠিত

 

অনলাইন ডেস্কঃ

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের বিচার চেয়ে এখন পরিবার নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ভুক্তভোগী তরুণী। মামলার করার পরও গ্রেফতার না হওয়ায় চেয়ারম্যান ও তার লোকজন বেপরোয়া হয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে ওই তরুণীকে এলাকা ছাড়া করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ওই তরুণী।

সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন। এ সময় তার মা উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে ওই তরুণী বলেন, আমি ঝালকাঠী জেলার নলছিটি উপজেলার সরই গ্রামের বাসিন্দা। আমার বাবা পেশায় একজন কৃষক। একই উপজেলার ৩ নম্বর কুলকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান বাচ্চু (৪৫) আমাদের পূর্ব পরিচিত। সেই সুবাধে চাকরি দেয়ার কথা বলে তিনি আমার পরিবারের সম্মতিতে আমাকে ঢাকায় দক্ষিণ বনশ্রীর ই ব্ল­কের ৯/২ নম্বর রোডের ১২৩ নম্বর বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে উঠান। ওই বাড়িতে মোরশেদা নামের এক নারী ছিলেন। এই মোরশেদার সহায়তায় চেয়ারম্যান ওই দিনই আমাকে ধর্ষণ করেন।

এনিয়ে প্রতিবাদ করলে তারা ধর্ষণের দৃশ্য অনলাইনে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এরপর কয়েকবার ধর্ষণ করলে আমি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে চেয়ারম্যান বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার গর্ভপাত ঘটায়। এরপর দিনের পর দিন বিয়ে না করেই চেয়ারম্যানের অত্যাচার বেড়ে যায়। একপর্যায়ে গত ১০ ফেব্রুয়ারি আমি বাদি হয়ে খিলগাঁও থানায় বাচ্চু চেয়ারম্যান ও তার সহযোগী মোরশেদাকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করি। এরপর থেকে বাচ্চু চেয়ারম্যান আরো বেপরোয়া হয়ে যান। মামলার পরও গ্রেফতার না হওয়ায় এখন তিনি এবং তার সহযোগীরা আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যদের মেরে ফেলার হুমকী দিচ্ছেন। আসামিদের ভয়ে উল্টো আমার পরিবারের সদস্যরা সবাই পালিয়ে বেড়াচ্ছি।

তাকে গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি না করা হলে যেকোনো সময় আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের তিনি মেরে ফেলতে পারেন বলে আশা করছি। এ ব্যপারে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপি মহোদয়ের সহায়তা কামনা করেন তিনি।

এ ব্যপারে জানতে চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান বাচ্চুর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার দুটি মোবাইল ফোনই বন্ধ পাওয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Ammar Plus P News Channel
Theme Customized By Theme Park BD