1. admin@ammarpluspnewschannel.com : admin :
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আ.লীগ সরকার মানুষের রক্ত চুষে খাচ্ছে : রেজা কিবরিয়া জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টির নেতাকে হুমকি, থানায় জিডি রকি নামে এক পোল্ট্রি মুরগির ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ বললেন- সালমা ইসলাম এমপি নারায়ণগঞ্জে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, নিহত ১ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে শত্রুতা করে কৃষকের ২০০ লাউ গাছ কেটে ফেলেছে দৃর্বৃত্তরা সরকার গঠন করতে ১৫১ আসনে জয় পেতে হয়, ১৫০ আসনে ইভিএমে ভোট নেওয়ার সিদ্ধান্ত উদ্দেশ্য প্রণোদিত নাটোরে স্ত্রীর মৃত্যুর ১২ ঘণ্টা পর চলে গেলেন স্বামীও এক ব্যাক্তির হাতে সকল ক্ষমতা থাকলে গণতন্ত্র চর্চা সম্ভব নয় – জি,এম কাদের গোপালগঞ্জে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

কাশিয়ানী’র গর্ব জনাব নুরে আলম মিনা অতিরিক্ত ডিআইজি পদমর্যাদার কর্মকর্তা ডিআইজি পদে পদোন্নতি পেয়েছেন

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ মে, ২০২২
  • ১১১ বার পঠিত

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

গোপালগঞ্জে কাশিয়ানী’র গর্ব জনাব নুরে আলম মিনা ২০ তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে গত ৩১/৫/২০০১ তারিখে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে এএসপি পদে যোগদান করেন।

গত ১০/৮/২০০৬ তারিখে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, গত ২৭/৪/২০১২ তারিখে পুলিশ সুপার এবং গত ২৮/১০/২০১৯ তারিখে তিনি অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি লাভ করেন।

তিনি পুলিশ সুপার হিসেবে সুনামগঞ্জ, সিলেট ও চট্টগ্রাম জেলায় অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

গত ২৮/১/২০২০ তারিখ হতে তিনি অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে ঢাকা রেঞ্জে কর্মরত ছিলেন। জনাব নুরে আলম মিনা একজন সাহসী,বিচক্ষণ ও দায়িত্বশীল অফিসার হিসেবে সকলের নিকট সমাদৃত।

গত ২০১৭ সালে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের আলোচিত ছায়ানীড় ভবনে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে তার সাহসিকতা ও দক্ষতার কারণে শিশু ও বৃদ্ধসহ ২১ জনকে পুলিশ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছিল।

সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্তঃ

জনাব নুরে আলম মিনা, বিপিএম, পিপিএম গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানাধীন এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৭৬ সালে জন্ম গ্রহন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ হতে বিএসএস (সম্মান) ও এমএসএস সমাপ্ত করে ২০ তম বিসিএসের মাধ্যমে ২০০১ সালে বাংলাদেশ পুলিশে সহকারী পুলিশ সুপার পদে যোগদান করেন।

বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী, সারদা, রাজশাহী হতে প্রশিক্ষণ শেষে ২০০২ হতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন বিলাইছড়ি, রাঙ্গামাটি এবং মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া সার্কেল পদে সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

২০০৬ সালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়ে রেলওয়ে জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী জেলা ও ডিএমপি, ঢাকার এডিসি (রমনা বিভাগ), কক্সবাজার এবং চট্টগ্রাম জেলায় অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১২ সালে পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়ে ২৭ এপ্রিল ২০১৩খ্রি. পর্যন্ত সুনামগঞ্জ জেলায় এবং ২৮ এপ্রিল ২০১৩খ্রি. হতে ১৯ জুলাই ২০১৬খ্রি.পর্যন্ত সিলেট জেলার পুলিশ সুপার পদে অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি গত ২০ জুলাই ২০১৬খ্রি. হতে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার পদে অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্বরত ছিলেন।

জনাব নুরে আলম মিনা, বিপিএম, পিপিএম জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীর দারফুর, সুদান মিশনে দায়িত্ব পালনকালে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা পদক প্রাপ্ত হন। বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে ‘‘বেস্ট-ইন-একাডেমিক্স” পদকে ভূষিত হন। বাংলাদেশ পুলিশে তাঁর অসাধারণ দায়িত্ব পালনের জন্য ২০১৩ সালে “প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা”, ২০১৪ সালে ‘‘আইজিপি ব্যাজ’’এবং ২০১৮ সালে জঙ্গী দমনে অসীম সাহসিকতার স্বীকৃতিস্বরূপ “বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)- সাহসিকতা” পদক লাভ করেন।

চাকুরী জীবনে তিনি দেশে বাস্তব প্রশিক্ষণ ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। এছাড়াও মালয়েশিয়ায় কুয়ালালামপুরে রয়েল মালয়েশিয়ান পুলিশ কলেজ হতে ‘‘ব্যাসিক কমার্শিয়াল ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন কোর্স’’ সম্পন্ন করেন।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত এবং ০২ কন্যা ও ০১ পুত্র সন্তানের জনক।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রশ্নে আপোষহীন জনাব নুরে আলম মিনা, বিপিএম, পিপিএম মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গী দমনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। জনবান্ধব সেবামুখী পুলিশিং নিশ্চিতকরণে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করার পাশাপাশি ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় আর্তমানবতার সেবায় উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। প্রবাসে কর্মরত চট্টগ্রাম জেলার বাসিন্দাদের পুলিশি সহায়তার জন্য তিনি চালু করেছেন ”প্রবাসী সহায়তা ডেস্ক”। যা সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসা পাচ্ছে।

সেবা, কর্মদক্ষতা ও অপরাধ নিয়ন্ত্রনে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে “বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সেবা” পদক পেয়েছেন গত ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯খ্রি. ঐতিহাসিক রাজারবাগ প্যারেড গ্রাউন্ডে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে। ইতোপূর্বে তিনি সেবা ও কর্মদক্ষতায় কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ২০১৩ সালে “প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা” এবং ২০১৮ সালে জঙ্গী দমনে অসীম সাহসিকতার স্বীকৃতিস্বরূপ “বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সাহসিকতা” অর্জন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Ammar Plus P News Channel
Theme Customized By Theme Park BD